হেডলাইন

ইউএনও’র স্বাক্ষর জাল করে গাংনী টেকনিক্যাল ও বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের কমিটি গঠনের চেষ্টা

গাংনী নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :

মেহেরপুরের গাংনী টেকনিক্যাল ও বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের অধ্যক্ষ পদ ও কলেজ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ জামান। রবিবার সন্ধ্যা ৭টার সময় স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে তার কার্যালয়ে মতবিনিময় করেন তিনি। এসময় স্থানীয় সাংবাদিক বৃন্দ ও গাংনী থানার ওসি আনোয়ার হোসেন উপস্থিত ছিলেন। গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ জামান বলেন,এডহক কমিটি গঠনের জন্য গত ১৫/০২/১৭ ইং তারিখে আমার স্বাক্ষর জাল করে গাংনী টেকনিক্যাল ও বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের তৎকালিন সময়ের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফিদাহ হাসান বাংলাদেশ bm 24,কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের কাছে একটি চিঠি পাঠায়। যার স্বারক নং গা/টে/বি/ম্যা/ক/০৭-১৬-২০১৬। এছাড়া বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পরিদর্শক প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল কুদ্দুস সর্দার স্বাক্ষরিত ১৬-০৭-১৭ ইং তারিখের ৫৭.১৭.০০০০.৪০২.১৬.৭৫৫৫.১৭/১১৬৪ নং স্বারকে বলা হয়েছে শিক্ষা বোর্ডের আইনজীবীর মতামতের ভিত্তিতে আবুল কালাম আজাদের বরখান্ত নিয়ম অনুয়ায়ী হয়নী। একারনে তার বরখাস্ত অনুমোদনযোগ্য ও কার্যকর নয়। গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ জামান বলেন শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী আবুল কালাম আজাদ গাংনী টেকনিক্যাল ও বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের বৈধ অধ্যক্ষ। শিক্ষা বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ১৮-০৭-১৭ ইং তারিখে কলেজের সভাপতি হিসেবে আমার কাছে যোগদান করে। যোগদানের পর ঈদুল আজহা ও জুলাই আগষ্ট ২০১৭ বেতন ভাতা বিল উত্তোলন করেন। কমিটির গঠন সম্পর্কে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ জামান বলেন, গাংনী টেকনিক্যাল ও বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের ৬ সদস্য বিশিষ্ট এডহক কমিটি গত ২৯ আগষ্ট বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পরিদর্শক প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল কুদ্দুস সর্দার অনুমোদন দেন। কমিটি সভাপতি হচ্ছেন গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ জামান,শিক্ষক সদস্য বকুলুজ্জামান (লিটন),শিক্ষাবিদ সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম শফিকুল আলম,ফুলকুড়ি অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম,অভিভাবক সদস্য চৌগাছা গ্রামের সাদ আহমেদ ও সদস্য সচিব পদে গাংনী টেকনিক্যাল ও বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের অধ্যক্ষ। গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ জামান বলেন,একটি মহল গাংনী টেকনিক্যাল ও বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ সম্পর্কে অজ্ঞাত কারনে অপপ্রচার করছে। সহকারী অধ্যাপক ফিদাহ হাসান জাল স্বাক্ষরের বিষয় টি স্বীকার করে বলেন,এডহক কমিটি গঠন করার জন্য স্বাক্ষরটি করা হয়েছিল। তবে এ ঘটনার সাথে আমি একা নয় অনেকেই জড়িত রয়েছে।

Spread the love
Updated: September 10, 2017 — 6:07 pm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

© 2017 SoftItHost
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.